রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ১২:৫৪ পূর্বাহ্ন

নির্বাচনকে কেন্দ্র করে নির্বাহী কর্মকর্তার গাড়ি ভাঙচুর

প্রতিনিধির / ১৩৩ বার
আপডেট : রবিবার, ৩০ অক্টোবর, ২০২২
নির্বাচনকে কেন্দ্র করে নির্বাহী কর্মকর্তার গাড়ি ভাঙচুর
নির্বাচনকে কেন্দ্র করে নির্বাহী কর্মকর্তার গাড়ি ভাঙচুর

২ নভেম্বর খোকসা উপজেলা পরিষদ নির্বাচন। এই নির্বাচনকে ঘিরে বেশ কয়েক দিন ধরেই চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী খোকসা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বাবুল আক্তার ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মোতাহার হোসেন সমর্থকদের মধ্যে। এরই মধ্যে শনিবার সন্ধ্যায় খোকসা বাজারে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী বাবুল আক্তারের লোকজন স্বতন্ত্র প্রার্থী মোতাহার হোসেনের এক সমর্থককে মারধরের অভিযোগ তোলেন। এ নিয়ে চরম উত্তেজনা সৃষ্টি হলে উভয়পক্ষ মুখোমুখি অবস্থান নেয় এবং ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া শুরু হয়।

কুষ্টিয়ার খোকসায় উপজেলা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে। সহিংসতায় জাড়িতরা খোকসা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার গাড়ি ভাঙচুর করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। শনিবার (২৯ অক্টোবর) রাত সাড়ে ৮টার দিকে খোকসা বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

খোকসা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করার চেষ্টা করেন। এ সময় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে গেলে আবারও শুরু হয় ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া ও ইটপাটকেল নিক্ষেপ। এ সময় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার গাড়ির পেছনের অংশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়।তবে এ বিষয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থীদের পরস্পরবিরোধী বক্তব্য পাওয়া যায়। স্বতন্ত্র প্রার্থী মোতাহার হোসেন বলেন, সন্ধ্যায় আওয়ামী লীগ দলীয় প্রার্থীর কর্মী সমর্থকরা তার এক কর্মীকে মারধর করে। এতে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। তবে তার লোকজন কোনো সংঘর্ষে জড়ায়নি।

অন্যদিকে, আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী বাবুল আক্তার তার কর্মী-সমর্থকদের বিরুদ্ধে হামলার অভিযোগ অস্বীকার করেন। উল্টো প্রতিপক্ষের হামলায় তার ৩ কর্মী আহত হয়েছেন বলে দাবি করেছেন।

এ বিষয়ে খোকসা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রিপন বিশ্বাস বলেন, উভয় পক্ষের মধ্যে যখন ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ার ঘটনা ঘটে তখন পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের জন্য আমি এবং খোকসা থানা পুলিশ খোকসা বাজারে যাই। পরে পরিস্থিতি শান্ত রাখার চেষ্টা করি। আমার গাড়ি সামান্য ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।খোকসা থানার অফিসার ইনচার্জ সৈয়দ আশিকুজ্জামান জানান, পরিস্থিতি বর্তমানে শান্ত রয়েছে। এ ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

অপরদিকে, আসন্ন ইউপি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে শনিবার কুষ্টিয়া সদর উপজেলার কাঞ্চনপুর ইউনিয়নে পাল্টাপাল্টি অভিযোগ উঠেছে। বিকালে চশমা মার্কার স্বতন্ত্র প্রার্থী আনিচুর রহমান ঝন্টুর নির্বাচনী অফিসে তালা লাগিয়ে দিয়েছে নৌকা মার্কার সমর্থকরা। অন্যদিকে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী একরামুল হকের নির্বাচনী অফিসে অগ্নিসংযোগ করেছে চশমা প্রতীকের সমর্থকরা। এই নিয়ে কাঞ্চনপুর ইউনিয়নে দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়েছে।

কুষ্টিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা দেলয়োর হোসেন খান বলেন, দুই গ্রুপের অভিযোগ পেয়েছি। নির্বাচনী বিধি অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এলাকায় পুলিশি টহল জোরদার করা হয়েছে। ওই ইউনিয়নে সীমানা ভাগাভাগির দীর্ঘ ২০ বছর পর অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে এই নির্বাচন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ
%d bloggers like this:
%d bloggers like this: