রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ০৮:২৪ অপরাহ্ন

বিদ্যালয় চত্বরে অনুসারীদের নিয়ে লাঠি দিয়ে পেটালো ছাত্র

প্রতিনিধির / ১৬০ বার
আপডেট : শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২২
বিদ্যালয় চত্বরে অনুসারীদের নিয়ে লাঠি দিয়ে পেটালো ছাত্র
বিদ্যালয় চত্বরে অনুসারীদের নিয়ে লাঠি দিয়ে পেটালো ছাত্র

হাসপাতালে কাতরাচ্ছেন শিক্ষক। তিনি নিজ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানেই আক্রমণের শিকার হয়েছেন। আক্রমণকারী তারই শিক্ষার্থী। ছাত্রীদের উত্যক্তের অভিযোগে শিক্ষার্থীকে শাসন করেছিলেন শিক্ষক আবু বক্কার সিদ্দিক। আর তাতেই ক্ষিপ্ত হয়ে অনুসারীদের নিয়ে শিক্ষককে পিটিয়ে আহত করেছে শিক্ষার্থী ফারদিন হোসেন। এ ঘটনায় আমিনপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন ভুক্তভোগী শিক্ষক আবু বক্কার সিদ্দিক।

গতকাল বৃহস্পতিবার পাবনার সুজানগর উপজেলার সাগরকন্দী রিয়াজ উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয় চত্বরে এ ঘটনা ঘটে। আহত শিক্ষক আবু বক্কার সিদ্দিককে সুজানগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। তিনি এই বিদ্যালয়ের জ্যেষ্ঠ শিক্ষক। আর ফারদিন হোসেন একই বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর ছাত্র। সে উপজেলার গোবিন্দপুর গ্রামের মোক্তার হোসেনের ছেলে।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল হালিম বলেন, বেশ কিছুদিন ধরে বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর বখাটে ছাত্র ফারদিন হোসেনসহ তার অনুসারীরা বিদ্যালয়ের বিভিন্ন শ্রেণীর ছাত্রীদের উত্যক্ত করে আসছিল।

 

এ বিষয়ে শিক্ষক আবু বক্কার সিদ্দিক প্রতিবাদ করেন এবং তাদের ধমক দিয়ে শাসন করেন। কিন্তু এতে বখাটে ছাত্র ফারদিন হোসেন শিক্ষক আবু বক্কার সিদ্দিকের উপর ক্ষিপ্ত হয়। এরই জের ধরে বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে শিক্ষক বিদ্যালয়ে আসলে বখাটে ফারদিনসহ ওর অনুসারীরা তাকে বিদ্যালয় চত্বরে লাঠি সোটা দিয়ে বেধড়ক মারপিটে আহত করে।
শিক্ষক আবু বক্কার সিদ্দিক বলেন, একজন ছাত্র বেয়াদবি করবে, স্কুলের মেয়েদের উত্যক্ত করবে। আর তাকে ধমক দেয়া, শাসন করা কি আমার অপরাধ? এজন্য ছাত্র হয়ে শিক্ষকের গায়ে হাত তুলবে এটা মেনে নেয়া যায়না। অভিভাবকরা কি তার সন্তানদের শাসন করা আদব কায়দা শেখানো ভুলে গেছেন?

আমিনপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রওশন আলী বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে বখাটেদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ বিষয়ে কথা বলার জন্য অভিযুক্ত শিক্ষার্থী ফারদিনের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেও খোঁজ মেলেনি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ
%d bloggers like this:
%d bloggers like this: