রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ১০:১৫ অপরাহ্ন

মিরপুর সড়কে ভিকারুননিসা ছাত্রীদের বিক্ষোভ, তীব্র যানজট

প্রতিনিধির / ১৩০ বার
আপডেট : মঙ্গলবার, ১১ অক্টোবর, ২০২২
মিরপুর সড়কে ভিকারুননিসা ছাত্রীদের বিক্ষোভ, তীব্র যানজট
মিরপুর সড়কে ভিকারুননিসা ছাত্রীদের বিক্ষোভ, তীব্র যানজট

স্থায়ী ক্যাম্পাসের দাবিতে আন্দোলন করছেন ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের ধানমন্ডি শাখার ছাত্রীরা। তারা সড়ক অবরোধ করে রাজধানীর মিরপুর সড়কে বিক্ষোভ করছেন। এতে ধানমন্ডি ২৭ থেকে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। যানবাহনগুলো ফার্মগেট হয়ে ঘুরে গেলেও তীব্র চাপে রয়েছে সড়ক।

আজ মঙ্গলবার দুপুর ১২টার দিকে তারা সড়ক অবরোধ করেন। ‘আমাদের দাবি মানতে হবে, স্থায়ী ক্যাম্পাস দিতে হবে’ স্লোগান দিতে থাকেন শিক্ষার্থীরা। এতে যোগ দেন অভিভাবকরাও। সর্বশেষ তথ্যানুযায়ী বেলা ২টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত সড়ক অবরোধ করে রাখেন তারা।

বিক্ষোভে অংশ নেয়া শিক্ষার্থীরা বলেন, ভিকারুননিসার চারটি শাখার মধ্যে এটাই প্রথম অনুমোদিত শাখা। ভাড়া বাড়িতে এই প্রতিষ্ঠানের শিক্ষা কার্যক্রম চলছে। দীর্ঘদিন হওয়ায় ভবনের টেম্পার চলে গেছে। অধ্যক্ষ সেটা জানেন।

 

কিন্তু তিনি নতুন ভবন বা স্থায়ী ক্যাম্পাসের উদ্যোগ নেননি। লস প্রজেক্ট দেখিয়ে এই শাখা এখন বন্ধের পাঁয়তারা করছে। সে জন্য ছাত্রী ও অভিভাবকেরা রাস্তায় নেমেছে।
আরেকজন অভিভাবক বলেন, সাবেক অধ্যক্ষ ফওজিয়া স্থায়ী ক্যাম্পাসের জন্য জমির বায়না করেছিলেন। কিন্তু বর্তমান অধ্যক্ষ কামরুন নাহার এসেই সেটা বাতিল করে দেন। এরপর ধানমন্ডি শাখার কয়েকজন শিক্ষককে মৌখিক নির্দেশে বদলি করা হয়। জমির বিষয়ে আমরা জেনেছি, রাঘব বোয়াল একটা কোম্পানি এরই মধ্যে বায়না করেছে। সে কারণে আমরা স্থায়ী ক্যাম্পাসের দাবিতে মানববন্ধন করছি।
এ বিষয়ে ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ কামরুন নাহার গণমাধ্যমকে বলেন, আপাতত স্থায়ী ক্যাম্পাস নির্মাণ সম্ভব না। আমাদের ফান্ডে স্থায়ী ক্যাম্পাস নির্মাণের জন্য এত টাকা নেই।
এর আগে ধানমন্ডি শাখা বন্ধের পায়তারার প্রতিবাদে লিফলেটও তৈরি করেছেন অভিভাবকরা। ভিএনএসসি অভিভাবক পরিষদ, ধানমন্ডির পক্ষ থেকে এই লিফলেট প্রচার করতে দেখা যায়।
লিফলেটে বলা হয়েছে, ভিকারুননিসা নূন স্কুল এন্ড কলেজ বাংলাদেশের একটি ঐতিহ্যবাহী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। এ প্রতিষ্ঠানের প্রথম অনুমোদিত শাখা হলো ধানমন্ডি। শাখাটি দীর্ঘ ২৮/২৯ বছর ধরে অত্যন্ত সুনামের সাথে পরিচালিত হয়ে আসছে। দীর্ঘদিনেও এ শাখার স্থায়ী ক্যাম্পাস না করে বরং বন্ধের পায়তারা চলছে। যা কোনোভাবেই কাম্য নয়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ
%d bloggers like this:
%d bloggers like this: