বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ০৬:১৪ পূর্বাহ্ন

স্টক এক্সচেঞ্জে ট্রেজারি বন্ডের লেনদেন শুরু সোমবার

প্রতিনিধির / ১৪৩ বার
আপডেট : শুক্রবার, ৭ অক্টোবর, ২০২২
স্টক এক্সচেঞ্জে ট্রেজারি বন্ডের লেনদেন শুরু সোমবার
স্টক এক্সচেঞ্জে ট্রেজারি বন্ডের লেনদেন শুরু সোমবার

অবশেষে ট্রেজারি বন্ড বা সরকারি বন্ডের সেকেন্ডারি বাজার চালু হতে যাচ্ছে। আগামী সোমবার থেকে পরীক্ষামূলক লেনদেন শুরুর ঘোষণা দিয়েছে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই)। সম্প্রতি বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর আব্দুর রউফ তালুকদার পরীক্ষামূলকভাবে ট্রেজারি বন্ডের সেকেন্ডারি বাজার চালু হতে পারে বলে জানানোর পর গতকাল বৃহস্পতিবার ডিএসইর পক্ষ থেকে এ ঘোষণা এলো।
অবশ্য ডিএসই জানিয়েছে, গতকালই শেয়ারবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) কাছ থেকে সোমবার থেকে ট্রেজারি বন্ড লেনদেন শুরুর আদেশ পাওয়া গেছে। এর পরই এ ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।

গত সোমবার বিশ্ব বিনিয়োগকারী সপ্তাহের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর বলেন, ‘আগামী সপ্তাহ থেকে পরীক্ষামূলকভাবে ট্রেজারি বন্ডের সেকেন্ডারি বাজারের লেনদেন শুরু করতে পারি আমরা।’

ডিএসই জানায়, দুই থেকে ২০ বছর মেয়াদি মোট ২৫১টি ট্রেজারি বন্ড নিয়ে সরকারি বন্ডের সেকেন্ডারি বাজার নতুন করে যাত্রা শুরু করতে যাচ্ছে। এর মধ্যে দুই বছর মেয়াদি ট্রেজারি বন্ড নয়টি। পাঁচ বছর মেয়াদি বন্ড ১৮টি। ১০ বছর মেয়াদি বন্ড ৩৬টি। ১৫ বছর মেয়াদি বন্ড ৯২টি এবং ২০ বছর মেয়াদি বন্ড ৯৬টি। এসব বন্ডের মাধ্যমে সরকার মোট তিন লাখ ১৫ হাজার ৭৯৯ কোটি টাকা ধার নিয়েছে।

ট্রেজারি বন্ডের লেনদেন শুরুর পরদিনই আগামী মঙ্গলবার (১১ অক্টোবর) ১৫ বছর মেয়াদি টিবি১৫ওয়াই১০২২ নামের বন্ডটির মেয়াদ শেষ হবে। এর বাইরে আরও চারটি ট্রেজারি বন্ডের মেয়াদ শেষ হবে আগামী ১২ ডিসেম্বরের মধ্যে। বাকি চারটির দুটি ১০ বছর মেয়াদি ও দুটি ১৫ বছর মেয়াদি। আগামী বছর দুই থেকে ১৫ বছর মেয়াদি আরও ২৫টি বন্ডের মেয়াদ পূর্তি হবে। তালিকাভুক্ত হতে চলা সবচেয়ে দীর্ঘমেয়াদি বন্ড টিবি২০ওয়াই০৬৪২টি নামের ট্রেজারি বন্ডটির মেয়াদ শেষ হবে ২০৪২ সালের ২৯ জুন।

ট্রেজারি বন্ড ২০০৫ সাল থেকেই স্টক এক্সচেঞ্জে তালিকাভুক্ত। তবে লেনদেন ফিসহ নানা জটিলতায় স্টক এক্সচেঞ্জে এ বন্ডের লেনদেন হচ্ছিল না। শুধু প্রাইমারি ডিলার ব্যাংকের মাধ্যমে এ বন্ডের কেনাবেচা হতো। গত অর্থবছর এভাবে দুই লাখ সাত হাজার ৭৮৮ কোটি টাকার ট্রেজারি বন্ড কেনাবেচা হয়।

এদিকে, এ বিষয়ে বিনিয়োগকারীদের জানানো ও প্রয়োজনীয় সহায়তা দেওয়ার জন্য ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে পরামর্শ দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। গতকাল বাংলাদেশ ব্যাংকের এক সার্কুলারে এ পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

বাজার সংক্ষেপ: মূলধনি বা শেয়ারবাজারের লেনদেনে তেমন কোনো পরিবর্তন নেই। গত কয়েক সপ্তাহের গতানুগতিক ধারাতেই চলছে এ বাজারের লেনদেন। গুটিকয় শেয়ারই বাজারের গতি-প্রকৃতি নিয়ন্ত্রণ করছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার প্রধান শেয়ারবাজার ডিএসইতে ৩৭০ কোম্পানির শেয়ার কেনাবেচা হয়েছে। এর মধ্যে ৭৭টির দর বেড়েছে, কমেছে ১০৩টির এবং দর অপরিবর্তিত ১৯০টির। সার্বিক শেয়ারদরের এমন নেতিবাচক ধারার মধ্যেও ঊর্ধ্বমুখী ছিল মূল্যসূচক। ডিএসইর প্রধান মূল্যসূচক ডিএসইএক্স ২৪ পয়েন্ট বেড়ে ৬৫৬৯ পয়েন্ট ছাড়িয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ

Categories

%d bloggers like this:
%d bloggers like this: